ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘রিমাল’, পায়রা ও মোংলায় ৭ নম্বর বিপদসংকেত

1

ডেস্ক রিপোর্ট।। বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হওয়া গভীর নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে  শনিবার (২৫ মে) সন্ধ্যা ছয়টার দিকে এটি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয় 

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মো. তরিফুল নেওয়াজ কবির কথা জানান তিনি বলেন, গভীর নিম্নচাপটি সন্ধ্যা ছয়টার দিকেই ঘূর্ণিঝড়রিমাল’- পরিণত হয়েছে কারণে পায়রা মোংলা সমুদ্র বন্দরকে নম্বর বিপৎসংকেত দেখাতে বলা হয়েছে ছাড়া চট্টগ্রাম কক্সবাজারকে নম্বর  বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে

তরিফুল নেওয়াজ কবির বলেন, ঘূর্ণিঝড়টি সন্ধ্যা ছয়টায় পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ৩৬৫ কিলোমিটার, মোংলা থেকে ৪০৫ কিলোমিটার, কক্সবাজার থেকে ৪০০ কিলোমিটার এবং চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দর থেকে ৪৫৫ কিলোমিটার দূরে ছিল

এদিকে ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টি হওয়ার পর শনিবার সন্ধ্যা থেকেই ভোলা, পিরোজপুরসহ উপকূলীয় বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি শুরু হয়েছে

ছয় জেলাকে বিশেষভাবে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ

ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলার জন্য দেশের ছয় জেলাকে বিশেষভাবে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ত্রাণ মন্ত্রণালয় জেলাগুলো হলো সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, খুলনা, বরগুনা, পটুয়াখালী ভোলা

শনিবার সকালে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের এক সভায় নির্দেশ দেওয়ার কথা জানান প্রতিমন্ত্রী মো. মহিববুর রহমান

প্রস্তুতি সভায় প্রতিমন্ত্রী বলেন, গত ১৫ বছরে ঘূর্ণিঝড়সহ সব দুর্যোগে তার নিবিড় পর্যবেক্ষণ নির্দেশনায় আমরা যথাসময়ে প্রস্তুতি নিয়ে মানুষের দুর্দশা লাঘব এবং জীবন সম্পদের ক্ষতি কমাতে সক্ষম হয়েছি ঘূর্ণিঝড়টিও যাতে একই ধারাবাহিকতায় সফলভাবে মোকাবিলা করতে পারি তার জন্য আমরা প্রস্তুত রয়েছি